বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন

রাতের_রিমাইন্ডার

এইচটিভি ডেক্স
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জুলাই, ২০২০
  • ১৯৪

🍁 আজ মেসওয়াক করেছেন?
🍁 প্রতি ফরজ নামাজের পর আয়তুল কুরসি পড়েছেন?
🍁 সূরা বাক্বারার শেষ দুই আয়াত (২৮৫ ও ২৮৬ নং আয়াত) পড়েছেন?
🍁 সূরা মূলক (৬৭ নং সূরা) পড়েছেন?

🚩 আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, দাঁতন মুখ পবিত্র রাখার ও প্রভুর সন্তুষ্টি লাভের উপকরণ।
(আহমাদ ২৪২০৩, নাসাঈ ৫, ইবনে খুযাইমাহ ১৩৫, ইবনে হিব্বান ১০৬৭, দারেমী ৬৮৪, বুখারী বিনা সনদে, সহীহ তারগীব ২০২)

🚩 আবু উমামা (রাঃ) হতে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, যে ব্যক্তি প্রত্যেক ফরয নামাযের পশ্চাতে ‘আয়াতুল কুরসী’ পাঠ করবে, সে ব্যক্তির জন্য তার মৃত্যু ছাড়া আর অন্য কিছু জান্নাত প্রবেশের পথে বাধা হবে না।
(নাসাঈ কুবরা ৯৯২৮, ত্বাবারানী ৭৫৩২, সহীহুল জামে ৬৪৬৪)

🚩 আবূ মাসঊদ বদরী (রাঃ) হতে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি রাতে সূরা বাক্বারার শেষ আয়াত দু’টি পাঠ করবে, তার জন্য সে দু’টি যথেষ্ট হবে।’
(বুখারী ৪০০৮, মুসলিম ১৯১৪-১৯১৬)

🚩 আবূ হুরাইরা (রাঃ) হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, কুরআনে ত্রিশ আয়াতবিশিষ্ট একটি সূরা এমন আছে, যা তার পাঠকারীর জন্য সুপারিশ করবে এবং শেষাবধি তাকে ক্ষমা করে দেওয়া হবে, সেটা হচ্ছে ‘তাবা-রাকাল্লাযী বিয়্যাদিহিল মুলক’ (সূরা মুলক)।
(আবূ দাঊদ ১৪০২, তিরমিযী ২৮৯১, হাসান)

Share This Post

আরও পড়ুন