সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন

মাগুরার মহম্মদপুরে কলেজছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ,

মাগুরা প্রতিনিধি
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০
  • ১৮৫

 

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার বাবুখালী ইউনিয়নের কেরীনগর গ্রামের আকলিমা খাতুন আখি (১৬) নামে এক কলেজছাত্রীকে বেঁধে গায়ে আগুন লাগিয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করেছে তার পরিবার। আগুনে তার শরীরের পেট ও বুক ঝলসে গেছে। আখি কেরীনগর গ্রামের আকরাম মোল্যার মেয়ে। সে কাজী সালিমা হক মহিলা কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে। এ বিষয়ে ভিকটিম আখির দাদা রতন মোল্যা বাদী হয়ে ৭ জনকে আসামি করে সোমবার মহম্মদপুর থানায় মামলা করেছে। পুলিশ মামলায় অভিযুক্ত ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ তারক বিশ্বাস জানান, বাদীর এজাহারে উল্লেখ করেছেন ঘটনার রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে আখি ঘরের বাইরে আসে। কিছু সময় পরে তার চিৎকারে পরিবারের লোকজন ছুটে এসে দেখে আখির গায়ে আগুন জ্বলছে। তখন পরিবারের সদস্যরা অগ্নিদগ্ধ আখিকে উদ্ধার করে প্রথমে মাগুরা সদর হাসপাতাল ভর্তি করে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো।
সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারী হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার আখির দাদা রতন মোল্যা ৭ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেছে। পূর্ব বিরোধের জের ধরে আসামিরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মামলায় বাদী উল্লেখ করেছেন।
পুলিশ মামলায় অভিযুক্ত ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন, কেরীনগর গ্রামের আরিফ মোল্যা(২৬), হারেজ মোল্যা(৬২), মাসুদ মোল্যা(৪৫), কামরুল হাসান( ৫০)ও বাবুল মোল্যা(৪৫)। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এটি প্রতিপক্ষের পুড়িয়ে মারার চেষ্টা নাকি আত্মহত্যার চেষ্টা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
সর্বশেষ ১৮ আগষ্ট মঙ্গলবার দুপুরে মুহম্মদপুর থানার ডিউটি অফিসার এস আই লিয়াকত মোবাইলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান-এ বিষয়ে ৭ জনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে-৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, মামলা নং ১৮ তারিখ-১৭/৮/২০২০ইং ।

Share This Post

আরও পড়ুন