সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫২ পূর্বাহ্ন

বাঁশখালীতে পাওনা টাকার বিষয়কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় নারীসহ আহত

তাজনুভা তাসকিন তাহিয়া চট্টগ্রাম অফিসঃ
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই, ২০২০
  • ২৪০

পাওনা টাকার বিষয়ে দু’পক্ষের তর্কাতর্কিকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় নারীসহ আহত হয়েছে অন্তত ৩ জন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত একজনকে অশংকাজনক অবস্থায় চমেক প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁশখালী উপজেলার শিলকুপ ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মাইজপাড়া গ্রামের খুইল্যা মিয়া’র বাড়ী সংলগ্ন চলাচলের রাস্তায়।

সংগঠিত ঘটনায় গুরুতর অহত মু. নুরুল আমিন (৩৮) কে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চমেক প্রেরণ করেন। অপরাপর আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান অভিযুক্তরা।

গত বুধবার (১জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় অন্যান্য আহতরা হলেন, আবুল বশর (২২), রিনা আক্তার (৩০)।

স্থানীয়রা জানান, ‘শিলকুপ ইউনিয়নের একই এলাকার দেলোয়ার হোছেন এর পুত্র সাহাব উদ্দীনের সাথে হাফেজ নুরুচ্ছফার পুত্র আবু ছালেক সাওদাগরের মধ্যে পাওনা টাকার বিষয় নিয়ে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে বিষয়টিকে কেন্দ্র করে জগড়া হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিলে পরে স্থানীয়দের সাথে বসে উভয়ের সাথে মিমাংশার জন্য বৈঠকের কথা হয়। পরে, হোছাইন আহমদ ও তার ভাইপুত সাহাব উদ্দিন সহ আবু ছালেকের পরিবারের উপর হামলা করে।

আহতের বড় ভাই আহমদ ছফা বলেন ‘পূর্বের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মাইজপাড়াস্থ চায়ের দোকানে আমার ভাইপুত আবু ছালেকের সাথে সাহাব উদ্দিনের তর্কাতর্কি হয়। এক পর্যায়ে সাহাব উদ্দীনের চাচা হোছাইন আহমদ এর নেতৃত্বে জমির উদ্দিন, দেলোয়ার হোছেন, মো. ইউছুফ, জিয়াউল হক, মু. হেলাল, ফজল কাদের সহ সদলবলে দা, ছুরি, লোহার রড, কিরিচ নিয়ে আমাদের পরিবারের উপর অতর্কিত হামলা করে। এ ঘটনায় আমার ছোট ভাই নুরুল আমিনকে লম্বা কিরিচ দ্বারা মাথায় আঘাত করলে মগজে গুরুতর জখম হয়। এতে আমার ভাইপুত আবুল বশর ও ভাইয়ের বউ রিনা আক্তারকে দা, চুরি ও লোহার রড দিয়ে আঘাত করে।’

বাঁশখালী হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক ডা. নিগার সোলতানা বলেন, ‘শিলকুপের সংঘষের ঘটনায় আহতরা চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন। আশংকাজন অবস্থায় গুরুতর আহত নুরুল আমিনকে চমেক প্রেরণ করা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মু. রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, ‘শিলকুপের মাইজপাড়ায় মারামারির ঘটনায় আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করছে অভিযুক্তরা। তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

Share This Post

আরও পড়ুন