বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:২৭ অপরাহ্ন

দিন দিন হারাতে বসেছে বাঙালির জাতীয় মাছ, মাছের রাজা ইলিশের স্বাদ, গন্ধ ও আকার:

শায়লা সুমনা
  • প্রকাশ : রবিবার, ১৯ জুলাই, ২০২০
  • ২৫০

হাই। আমি শায়লা আজ আমি আপনাদের জাতীয় মাছ ইলিশ নিয়ে কিছু কথা বলতে চাই। দিন যতই যাচ্ছে কেমন জানি আস্তে আস্তে ইলিশ তার পুরনো সেই স্বাদ, গন্ধ হারাচ্ছে মানে আজ থেকে ৩০ ও ৪০ বছর আগের ইলিশ মাছের যে অনন্য বৈশিষ্ট্য সেটা এখন আর এই মাছের মধ্যে তেমন নেই। আজ আমি দিন দিন ইলিশ মাছের স্বাদ,গন্ধও আকার কমার কারন ও এর সমাধান নিয়ে কিছু কথা বলব। আসুন তাহলে শুরু করি।

১.নদীতে পলি কমে বালুর আধিক্য:: আপনারা জানেন বাংলাদেশের বেশীর ভাগ নদী বালুতে ভরে যাচ্ছে।বিভিন্ন বাঁধ যেমন ফারাক্কা ও অন্যান্ন বাঁধ দেওয়ার জন্য। এতে নদীর নাব্যতা দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে। যে পরিমান পলি থাকার কথা সেটা এখন আর বেশীরভাগ নদীতে নেই। বালু দিয়ে ঢাকা পড়েছে ইলিশের উপকারী পলি। কারন ইলিশের বেশীরভাগ খাদ্য উপাদান এই পলিতে বিদ্যমান থাকে। নদীতে বালুর পরিমান বৃদ্ধিতে পলিতে বিদ্যমান খাদ্য যেমন উদ্ভিজ্জ ও প্রানিজ প্লাংটন ও প্রাকৃতিক জৈব উপাদানের প্রচুর ঘাটতি দেখা দিচ্ছে বিভিন্ন নদীতে। ফলে খাদ্য পর্যাপ্ত পরিমানে না পাওয়ার কারনে আজ ইলিশের স্বাদ ও গন্ধ হারাচ্ছে, নেই বল্লেই চলে আর আকারও ছোট হচ্ছে দিনকে দিন।

২.স্রোত হ্রাস: যেহেতু বেশীরভাগ নদী বালু দিয়ে ভরে যাচ্ছে তাই এসব বড় বড় নদীর স্রোত কমে যাচ্ছে। ইলিশ যেহেতু স্রোতের বিপরীত মুখে গমন করে।স্রোতের বিপরীতে ইলিশ যাওয়ার সময় ইলিশকে প্রচুর এনার্জি খরচ করতে হয়, এতে ইলিশের শরীরে জমে থাকা ফ্যাট মানে তেল ও চর্বি গলতে শুরু করে। আর আমরা তখনই বেশীরভাগ ইলিশ ধরে থাকি নদীর মোহনা থেকে। এই গলানো ফ্যাট বা তেলই মুলত ইলিশ মাছের স্বাদও গন্ধ তৈরী করে। যেটার জন্য ইলিশ খেয়ে আমরা মজা পাই। কিনতু নদীর পানিতে বালুর পরিমান বৃদ্ধি ও বিভিন্ন জায়গায় চর পরে নদীর স্রোত কমে যাওয়াতে ইলিশ মাছ তার শরীরের এনার্জি সেই পরিমান খরচ করতে না পাড়ার জন্য তার শরীরের তেল ও চর্বি গলাতে ব্যর্থ ফলে ইলিশের স্বাদ ও গন্ধ২ টাই কমে যাচ্ছে দিন দিন। ভবিষ্যতে যদি নদীর স্রোত বালুর কারনে আরো কমে যায় তাহলে হয়ত ইলিশের এই স্বাদ ও গন্ধ থেকে আমরা পুরো পুরি বঞ্চিত হব। চিন্তার বিষয়।

৩. নদীর পানির স্বাদে পরিবর্তন ও মরে যাওয়া: দিন দিন যেভাবে নদীতে বালুর পরিমান বৃদ্ধির কারনে একদিকে নদী মরে যাচ্ছে এতে ইলিশের পরিমান ভবিষ্যতে কমবে ও নদীর মিঠা ও ঘোলা পানির স্বাদের পরিবর্তনে ইলিশ মাছের স্বাদের পরিবর্তন কমে যাচ্ছে। আর প্রয়োজনীয় পুস্টির অভাবে এর আকারও ছোট হচ্ছে দিন দিন।

সবশেষে একথা জানাতে চাই যদি দিন দিন বাঁধ দেওয়ার ফলে নদীতে বালুর আধিক্য বেড়ে যাওয়ার জন্য ও পলি কমার জন্য ও নদীর প্রাকৃতিক পরিবেশ পরিবর্তনে ইলিশের খাদ্য ঘাটতি, স্রোতে প্রতিকুলে চলার গতি হ্রাস ও নদী শুকিয়ে যায় তাহলে আমাদের ঐতিহ্য ইলিশের সেই স্বাদ, গন্ধ ও আকার থেকে আমরা বঞ্চিত হব। নদীর পরিবেশ যদি ঠিক না রাখতে পারি তাহলে ভবিষ্যতে ইলিশ হয়ত তার দিক পরিবর্তন করে অন্য কোথায় চলে যেতে পারে। তাই সবাই Be careful.

Share This Post

আরও পড়ুন