মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:০১ অপরাহ্ন

এসআরএস ইয়ুথ ক্লাবের বর্জ্য অপসারণ কর্মসূচি সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিনিধি
  • প্রকাশ : রবিবার, ২ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৩৯

কভিড-১৯ মহামারির প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষাপটেও
এলাকাবাসীকে সচেতন করে নিজেদের এলাকা নিজেরা পরিচ্ছন্ন রাখতে উদ্বুদ্ধ করার জন্য পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে হাটহাজারী ১২নং চিকনদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের সম্মানিত প্যানেল চেয়ারম্যান এ. মোস্তফা আরজু মাস্টার পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচ্চন্নতা স্বরুপ কুরবানি পশুর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মসূচির বাস্তবায়ন করেছে এস আর এস ইয়ুথ ক্লাব।

গত ( শনিবার) ০১ আগষ্ট, দুপুর ১২ টায় এস আর এস ইয়ুথ ক্লাবের উদ্যোগে আমান বাজার- নেয়ামত আলী সড়কের চারপাশে “নিজ এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখি, দেহ-মনে সুস্থ থাকি” স্লোগান দিয়ে এই পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

এলাকাবাসীর অসচেতনতা, কোরবানির বর্জ্য যত্রতত্র ফেলার ফলে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে বিভিন্ন রোগের ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ময়লা আবর্জনাযুক্ত পরিবেশ জীবানুবাহী নানা মশার অভয়ারণ্যও বটে। প্রতিবছর শতশত মানুষ ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু, চর্মরোগ, পরিপাকতন্ত্রের রোগসহ বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত হয় শুধুমাত্র নোংরা পরিবেশে বসবাস করার জন্য। অনেকেই এসব রোগে আক্রান্ত হয়ে অকালে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এই সমস্ত রোগের কারণে স্বাস্থ্যগত ক্ষতির মুখে পড়ছে জনসাধারণ এবং অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে রাষ্ট্র।

উক্ত কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন প্যানেল চেয়ারম্যান এ মোস্তফা আরজু মাস্টার,সংগঠনের সভাপতি হাসান আব্দুল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মিনহাজ উদ্দীন, সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাদুর আলম,অর্থ সম্পাদক আইয়ুব পারভেজ, শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মুরশেদ মুরাদ,প্রচার সম্পাদক নূরনবী সোহেল, ক্রীড়া সম্পাদক নাজিম উদ্দিন সহ সংগঠনের এর সদস্য নিশাত,ফাহিম,রিশাত,তানিম, বাপ্পু,নাইয়ুম,নয়ন,শাওন,ও প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সুস্থ দেহ এবং মনের প্রফুল্লতার জন্য পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ঘর-বাড়ি, রাস্তাঘাট, নালা-নর্দমা, স্কুল, কলেজ, বাজার, ঘাট, অফিস-আদালত এবং এর আশ-পাশের এলাকাসমূহ কোরবানির বর্জ্য বিহীন পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা জরুরি। এসব কাজ করতে সরকারের বিভিন্ন সংস্থা যেমনি কাজ করে তেমনি সর্বস্তরের জনসাধারণেরও এস আর এস ইয়ুথ ক্লাবের মত এ ব্যাপারে এগিয়ে আসা উচিত।

তারা আরো বলেন, মনে রাখতে হবে জনগণই এর প্রধান ভুক্তভোগী। জনগণের সচেতনতাই পারে নিজেদের পরিপার্শ্বিক এলাকা ময়লা-আর্বজনা ও জীবাণুমুক্ত রাখতে। আমরা নিজেরা যদি নিজেদের এলাকার পরিবেশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে রাখি তাহলে একদিকে যেমন জায়গাটি উজ্জ্বলতা ও প্রাণ ফিরে পাবে তেমনি নানান অসুখ-বিসুখ থেকেও আমরা আমাদের পরিবার ও সমাজকে মুক্ত রাখতে পারব।

Share This Post

আরও পড়ুন